ঢাকা, বুধবার, ৮ এপ্রিল ২০২০

ছাত্র অধিকারকে ছাত্র কল্যাণ পরিষদের উন্মুক্ত প্রস্তাব

:: সিটি রিপোর্ট || প্রকাশ: ২০২০-০২-২৭ ১৯:৪৮:৫২

কার্যক্রমে বেশ ভিন্নতা থাকলেও দীর্ঘদিন ধরে সাধারণ শিক্ষার্থীদের জন্য কাজ করছে বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ ও বাংলাদেশ ছাত্র কল্যাণ পরিষদ। এরমধ্যে প্রথম সংগঠনটি কোটা সংস্কার আন্দোলন দিয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। আর দ্বিতীয়টি সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়স বৃদ্ধির জন্য আন্দোলন করে সমাদিত হয়েছে।

এবার বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদকে উন্মুক্ত কিছু প্রস্তাবনা দিয়েছে ছাত্রকল্যাণ পরিষদ। প্রস্তাবণাগুলো হলো- ছাত্রকল্যাণ পরিষদের ৩৫ সহ ৪ দফা, ছাত্র অধিকার পরিষদের ৩৫ বাদে ৮ দফা প্রায় এক এবং একটু ছাড় দিলেই বৃহৎ আন্দোলন করা সম্ভব।

প্রস্তাব দেয়া সংগঠনটি চায় উভয় সংগঠন মিলে জাতীয় পর্যায়ে বৃহৎ আন্দোলন গড়ে উঠুক।

প্রস্তাব প্রদানকারী সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্র কল্যাণ পরিষদের প্রধান সমন্বয়ক মুজাম্মেল মিয়াজী ক্যারিয়ারটাইমস২৪.কমকে বিষয়টি জানিয়েছেন।

তিনি জানান, যেহেতু ৩৫ বাদে উভয় সংগঠনের অন্য দফাগুলো অনেকটা এক, তবে কেন বিচ্ছিন্ন আন্দোলনকে করে আমরা ছাত্র সমাজ বিভাজিত থাকবো? তাই সমন্বিত হয়ে ৩৫ সহ ৪ দফা এবং ৮ দফা নিয়ে আন্দোলন করলে ছাত্র সমাজের আরেকটি বৃহৎ আন্দোলন গড়ে উঠবে বলে আমি মনে করি।

কারণ হিসেবে তিনি বলেন, কোটা সংস্কার আন্দোলনের সময় ৩৫ প্রত্যাশীরা কোটা সংস্কার আন্দোলনে অংশগ্রহণ করেছিল। তাই কোটা সংস্কার আন্দোলনটি সফল হয়েছে। সমন্বয় ছাড়া এখন কোন পক্ষেরই আন্দোলন সফল করা সম্ভব হবে না।
আমরা যদি সবাই যার যার অবস্থান থেকে একটু ছাড় দিই তবেই সমন্বয় করা সহজ হবে। আর পুরো ছাত্র সমাজ যদি একবার সমন্বিত হয়ে রাজ পথে নামে তবে যে কোন দাবি আদায় করা আমাদের পক্ষে সম্ভব। ছাত্র অধিকারের কাছে আমি বিনয়ের সাথে উম্মুক্ত সমন্বয়ের প্রস্তাবনা করছি। আশা করি আপনারা যদি আপনাদের অবস্থান থেকে সামান্য ছাড় দিয়ে এগিয়ে আসেন তবে সবাই উপকৃত হবে।

তবে এ বিষয়ে বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের পক্ষ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি।