ঢাকা, সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০

রুপালী ব্যাংক: চার বছরেও শেষ হয়নি একটি নিয়োগ প্রক্রিয়া

:: সিটি ডেস্ক || প্রকাশ: ২০২০-০৯-১৪ ১১:৩৮:৫১

দিনদিন দেশে শিক্ষিত বেকার বাড়ছে। সেই সাথে বাড়ছে চাকরির জন্য হাহাকার। এরপর আছে নিয়োগের দীর্ঘসূত্রিতা। অতি সম্প্রতি নিয়োগের দীর্ঘসূত্রিতার উদাহরণ তৈরি করেছে
রাষ্ট্রায়ত্ব রুপালী ব্যাংক। এই আর্থিক প্রতিষ্ঠানটির একটি নিয়োগ প্রক্রিয়া গত চার বছরেও শেষ হয়নি। গত সাত মাস পূর্বে মৌখিক পরীক্ষা শেষ হলেও এখনো চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করা হয়নি। এতে মৌখিক পরীক্ষায় অংশ নেওয়া আড়াই হাজারের বেশি চাকরিপ্রার্থী তীব্র ক্ষোভ ও হতাশার কথা জানিয়েছেন।

তারা বলছেন, একজনের বয়স ২০১৬ সালে ৩০ বছর হলে এখন ৩৫ বছর হবে। এই চাকরির আশায়তো জীবন থেকে ৫ বছর হারিয়ে গেল। এর দায় কে নেবে?

জানা গেছে, সরকারি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের জন্য ২০১৫ সালে ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি (বিএসসি) গঠন হয়। এতে ব্যাংকের নিয়োগ প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত হবে বলে আশা ছিল। কিন্তু দীর্ঘসূত্রিতায় আটকে পড়ছে অনেক নিয়োগ প্রক্রিয়া। বিশেষ করে প্রথম দুই বছরে নিয়োগ পরীক্ষাগুলো তেমন গতি পায়নি।

পরীক্ষার্থীরা জানান, ২০১৬ সালের ৩ আগস্ট ৭৩৬টি পদের বিপরীতে রূপালী ব্যাংকের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। ২৩ আগস্ট ছিল আবেদনের শেষ সময়। এতে ৬০ হাজার ২৪২ জন আবেদন করেন। এর তিন বছর পর ২০১৯ সালের ১৩ নভেম্বর ওই পদের বিপরীতে প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এতে উত্তীর্ণ হন ১০ হাজার ১১৯ জন।

পরে গত ২৬ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন দুই হাজার ৪৭৫ জন। তাদের মৌখিক পরীক্ষা শুরু হয় ৫ জানুয়ারি। গত ১২ ফেব্রুয়ারি এ পরীক্ষা শেষ হয়। এরপর সাত মাস পার হলেও ফল প্রকাশ হয়নি। সবমিলিয়ে চার বছর এক মাসের বেশি সময় চলে গেছে।

একজন চাকরিপ্রার্থী বলেন, একটা চাকরি পাওয়া যে কত দরকার, তা কি নিয়োগকর্তারা বুঝতে পারেন না। ২০১৬ ও ২০১৭ সালের সব নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির ফল হয়ে গেছে। অথচ রূপালি ব্যাংকের নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ হচ্ছে না। অনেক পরীক্ষার ফল প্রকাশ হয়েছে, চাকরিতে যোগদানও করেছেন অনেকে।

তবে ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির সদস্য সচিব আরিফ হোসেন খান জানিয়েছেন, শিগগিরই প্রক্রিয়াটা শেষ করা হবে।

গণমাধ্যমে তিনি বলেন, মামলাজনিত কারণে পরীক্ষাটা নেওয়া যায়নি। গত বছরের শেষে পরীক্ষা শুরু হয়। ফেব্রুয়ারিতে মৌখিক পরীক্ষা শেষ হওয়ার পর করোনাভাইরাস চলে আসে। এর সঙ্গে জড়িত কয়েকজন অসুস্থও হয়ে পড়েন। এ কারণেই ফল দিতে দেরি হচ্ছে।

তিনি বলেন, রুপালী ব্যাংকের অফিসার পদের ফল দিলে যারা সিনিয়র অফিসার পদে নিয়োগ পেয়েছেন তারা চলে যেতেন। এ কারণে সিনিয়র অফিসার পদের ফল আগেই দেওয়া হয়েছে। প্রার্থীদের কিছুদিন ধৈর্য ধরতে বলব। চলতি মাসের মধ্যেই ফল প্রকাশ হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।